প্রবেশগম্যতা সেটিংস

Image: Edvin Lundqvist for GIJN

লেখাপত্র

পাচার হওয়া অর্থের খোঁজে লন্ড্রোম্যাট থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক পর্যন্ত

আর্টিকেলটি পড়ুন এই ভাষায়:

বৈশ্বিক জিডিপির আনুমানিক ২ থেকে ৫ শতাংশ আসে বৈশ্বিক মানি লন্ডারিংয়ের মাধ্যমে— টাকার অংকে যা ৮০০ বিলিয়ন থেকে ২ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। এটি মূলত অপরাধী ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অসাধু কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে অর্জিত আয় লুকানোর একটি অবৈধ উপায়। আর এ ধরনের “অর্থের গতিপথ অনুসরণ” অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু আপনি ঠিক কোথা থেকে শুরু করবেন? যদিও অর্থ পাচারকারীদের কাছে ব্যাংক ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ, তবে এদের কাছ থেকে আপনি যে তথ্য উদ্ধার করতে পারবেন তা নেহাতই সামান্য। এছাড়াও, লেবানন কিংবা হংকংয়ের মতো দেশগুলোতে আবার ব্যাংকিং বিষয়ক গোপনীয়তা আইন রয়েছে। ফলে শুধুমাত্র বিচারিক হস্তক্ষেপের মাধ্যমেই গ্রাহকের তথ্যগুলো তারা অন্যদের কাছে হস্তান্তর করে থাকে।

১৩তম গ্লোবাল ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজম কনফারেন্সে (#জিআইজেএন২৩) তিনটি গণমাধ্যমের সাংবাদিক মুদ্রাপাচারের সাম্প্রতিক ঘটনা এবং অবৈধ আর্থিক প্রবাহ নিয়ে তাদের অনুসন্ধান সবার সামনে তুলে ধরেছেন। তাদের পরামর্শগুলো ছিল মূলত মুদ্রাপাচারের গোপন কোডগুলোকে ভাঙ্গা এবং লেনদেন, শেল কোম্পানি, ও অফশোর অ্যাকাউন্টের আড়ালে লুকোনো অর্থ খুঁজে বের করার উপায় নিয়ে।

একজন অপরাধীর দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করুন

অপরাধীরা কিভাবে ব্যাংককে কাজে লাগায় ও অর্থ লুকিয়ে রাখে? তারা একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ভুয়া চালান, শেল কোম্পানি এবং কর ফাঁকি দেওয়ার মতো কয়েকটি পদ্ধতি ব্যবহার করে। মানি লন্ডারিংয়ের সঙ্গে রিয়েল এস্টেট কিংবা অন্যান্য ব্যক্তিগত সম্পদ, খ্যাতনামা পরামর্শদাতা বা লবিস্ট নিয়োগ, বা চুক্তি সংক্রান্ত বিষয়গুলো জড়িত থাকতে পারে, যা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় অর্থ পাচারে সহায়তা করে। এ ধরনের কাজগুলোর সঙ্গে সম্পর্কিত তথ্যের রেকর্ড বা ক্ষেত্রগুলো আপনার অনুসন্ধান শুরু করার জন্য উত্তম জায়গা।

একটি প্রতিষ্ঠানের মতো করে ভাবুন

আপনি যে প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানির ওপর অনুসন্ধান চালাতে যাচ্ছেন, তারা কী ধরনের নথি বা ডেটা তৈরি করতে পারে, সে সম্পর্কে খোঁজ-খবর করুন। নজর দিন প্রতিটি খুঁটিনাটির দিকে । কী নাম ব্যবহার করা হয়েছে? আপনার অনুসন্ধানে কাজে লাগতে পারে এমন অন্যান্য কোম্পানির নাম আছে কিনা? কিছু কিছু ক্ষেত্রে কোম্পানির আইন অনুসারে লেনদেনসহ অন্যান্য তথ্য ঘোষণার বাধ্যবাধকতা থাকে। কর্পোরেট নোটিশ, অডিট রিপোর্ট, অধিগ্রহণ সম্পর্কিত বিবরণগুলো আপনাকে শেল কোম্পানি বা এর মালিকদের কাছে নিয়ে যেতে পারে। তথ্য মিলতে পারে কোম্পানির মধ্যকার চুক্তিগুলোর ওপর চোখ বুলিয়ে: যেমন ঠিকাদার হিসেবে কারা কাজ করছে এবং তাদের শর্তগুলো কী? তাছাড়া অপরাধীদের অবৈধ ব্যবসায়ের হিসাব-নিকাশ রাখার জন্য হিসাবরক্ষক, কর্মী ও আইনজীবীদের নিয়োগ দেওয়া হয়। মিসৌরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ জার্নালিজমের অধ্যাপক সেশন মডারেটর মার্থা স্টেফেনস বলেন, “ব্যবসায়িক কাঠামোর অনুসন্ধান অর্থের গতিপথ অনুসরণ করতে আমাদের সহায়তা করতে পারে।”

জিআইজেএন২৩-এর ফলোয়িং দ্য মানি প্যানেলে কথা বলছেন দারাজ মিডিয়ার আলিয়া ইব্রাহিম, দ্য প্রিমিয়াম টাইমসের মুসিকিলু মজিদ, ওসিসিআরপির পল রাদু এবং মিসৌরি বিশ্ববিদ্যালয়ের মডারেটর মার্থা স্টেফেনস (বাঁ থেকে ডানে)। ছবি: এডভিন লুন্ডকভিস্ট, জিআইজেএন।

সম্পদের উৎস খুঁজতে থাকুন

ব্যাংকের সঙ্গে বেসরকারি কোম্পানিগুলোর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকতে পারে, এক্ষেত্রে অনুসন্ধান করাটা একটু মুশকিল। “তাই এর বাইরে কী ধরনের তথ্য আছে তা আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে,” বলেন  স্বাধীন প্যান-আরব নিউজ সাইট দারাজের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী আলিয়া ইব্রাহিম। তাদের এ সংবাদ মাধ্যমটি অর্থ পাচার ও দুর্নীতি সন্দেহে ব্যাংকে ডু লিবানের গভর্নরের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নেতৃত্ব দিয়েছে। আলিয়ার এ কথার অর্থ হচ্ছে কোম্পানির মালিক বা অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের সম্পদের উৎস খুঁজতে থাকুন — বিশেষ করে রিয়েল এস্টেট, হলিডে হোম থেকে শুরু করে শহরের খালি অ্যাপার্টমেন্ট পর্যন্ত।

পানামা পেপারস তদন্তের সঙ্গে সম্পৃক্ত নাইজেরিয়ার প্রিমিয়াম টাইমসের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মুসিকিলু মজিদ আরেকটু যোগ করে বলেন, ফাঁস হওয়া কোনো তথ্য না পেলে আপনি সম্পত্তির উৎস অনুসন্ধানের মাধ্যমে একজন ব্যক্তি বা সংস্থা কতটা ব্যয় করছে এবং কী পরিমাণ স্থানান্তর হচ্ছে – এমন তথ্য সমৃদ্ধ নথিপত্র খুঁজে পেতে পারেন। তাছাড়া  কিছু দেশে, সম্পত্তি ক্রয়ের সব ধরনের রেকর্ড থাকবে। ওসিসিআরপির সহপ্রতিষ্ঠাতা ও উদ্ভাবনী বিভাগের প্রধান পল রাদু বলেন, পূর্ব ইউরোপের প্রতিষ্ঠান আর ব্যক্তিদের ঘিরে অনুসন্ধানের সময় তারা সম্পত্তি ক্রয়ের চুক্তির সম্পূর্ণ লেনদেনের রেকর্ড পেতে তথ্য অধিকার (ফ্রিডম অব ইনফরমেশন) আইনকে কাজে লাগান। এর মাধ্যমে তারা জানতে পারেন যে, ওই ব্যক্তি সুইজারল্যান্ডে ব্যাংক হিসাব খুলেছেন। “আপনি এমন একটি দেশ থেকে সূত্র টানতে পারেন যার সঙ্গে হয়তো শুরুতে কোনো সংযোগ ছিল না,” তিনি বলেন।

বিভিন্ন ওপেন সোর্স ইনভেস্টিগেশন টুল আপনাকে সামাজিক নেটওয়ার্কে পোষ্ট করা বিভিন্ন ছবি ও ভূ-অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য অনুসন্ধানে সাহায্য করতে পারে; বিশেষ করে, আপনি যে ব্যক্তিদের নিয়ে অনুসন্ধান করছেন তাদের পরিবারের সদস্য বা সহযোগীদের সম্পদের ভাগ আছে কিনা কিংবা তারা জেট বা ইয়টের মতো সম্পদ ব্যবহার করেছে কিনা। উদাহরণস্বরূপ ২০২০ সালে, রাশিয়ার সমাজকর্মী অ্যালেক্সি নাভালনির দুর্নীতিবিরোধী ফাউন্ডেশন এমন একজন ব্যাংকারের তথ্য ফাঁস করে, যিনি তার এক উপপত্নীকে জন-তহবিলের অর্থ  প্রদান করেছিলেন। তারা অভিযোগ প্রমাণ করেছিলেন, ব্যক্তিগত জেট ও ইয়টের গতিপথ অনুসরণ এবং তার সঙ্গে সেই নারীর ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা ইয়টের ছবি মিলিয়ে।

প্রিমিয়াম টাইমসের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা, মুসিকিলু মজিদ। ছবি: এডভিন লুন্ডকভিস্ট, জিআইজেএন।

আদালতের মামলাগুলো যাচাই করুন

আপনি অনুসন্ধান করছেন এমন প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে চলমান বিচারিক কার্যক্রম ও আদালতের নথি থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেতে পারেন। যেমন ভিন্ন নামযুক্ত ব্যক্তি, ব্যাংক হিসাবের অবস্থান বা সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত তথ্য। একজন পেশাদার অর্থ পাচারকারীকে নিয়ে অনুসন্ধান করার সময়, ওসিসিআরপি মার্কিন তথ্য অধিকার আইনের মাধ্যমে  আদালতের নথিগুলো দেখার আবেদন জানায়, কারণ নিউইয়র্কে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়েছিল। ওই নথিতে অনুসন্ধানের বিষয় সম্পর্কিত অতীত লেনদেনগুলোও অন্তর্ভুক্ত ছিল।

অভ্যন্তরীণ উৎসগুলো চষে ফেলুন

তাই শীর্ষ অপরাধীদের দিকে মনোনিবেশকালিন, তালিকার নিচের দিকে ব্যক্তিদের অর্থের উৎসগুলো ঘাটতেও ভুলবেন না। মজিদ বলেন, “ব্যাংকার ও ব্যবসায়ীদের গাড়ি চালকেরা তথ্যের অন্যতম উৎস। “নিচের দিকের এ লোকগুলো তাদের বসদের ফোনকল, কথোপকথন আর কাজের কায়দা-কানুনগুলো সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকে।”.

সাহায্য চান

মুদ্রাপাচার ও অবৈধ আর্থিক প্রবাহ দেশের গণ্ডি আর বিচার ব্যবস্থার গণ্ডি ছাড়িয়ে যায়। তাই আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলের অনুসন্ধানী কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত এমন সহকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করুন — তাদের কাছে এমন সব  তথ্য ও কৌশল থাকতে পারে, যা হয়তো আপনার জানা নেই।

উন্মুক্ত ডেটাবেস ব্যবহার করুন

আলোচক প্যানেলটি বেশ কিছু উন্মুক্ত, অনুসন্ধানযোগ্য ডেটাবেসের কথা উল্লেখ করেছে যা প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের অনুসন্ধানে সহায়তা করতে পারে-

এছাড়া গোপন ও পাচারকৃত অর্থের হদিস পেতে জিআইজেএনের টুলবক্স এবং সংগঠিত অপরাধের আর্থিক বিষয়গুলো অনুসন্ধানের জন্য আপনি আমাদের গাইডও ব্যবহার করতে চাইতে পারেন।

ভুলগুলোকে খুঁজে বের করুন

ধনী ব্যক্তি কিংবা অপরাধীরা এক ধরনের দায়মুক্তির বোধে আচ্ছন্ন হতে পারেন—  যা তাদের বেপরোয়া করে তুলতে পারে। তখন তারা আইনের বিপরীতে এতটাই সুরক্ষিত বোধ করেন যে বড় ধরনের ভুল বা নিয়ম ভঙ্গ করে বসতে পারেন, রাদু বলেন। তাই একজন অনুসন্ধানী সাংবাদিক হিসেবে প্রতিটি লাইন খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে পড়ুন। যেমন, রুশ মাফিয়াদের মুদ্রাপাচার নিয়ে অনুসন্ধান করার সময়, ওসিসিআরপি অস্ট্রিয়ার এক আইনজীবীর সঙ্গে তাদের সম্পর্ক খুঁজে পায়, যেখানে দেখা যায় প্রতিটি ধাপে মুদ্রা লেনদেনগুলোকে “রেড হেরিং” বা সূক্ষ্মভাবে লুকানোর কোনো চেষ্টাই করা হয়নি।

ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে আমাদের লেখা বিনামূল্যে অনলাইন বা প্রিন্টে প্রকাশযোগ্য

লেখাটি পুনঃপ্রকাশ করুন


Material from GIJN’s website is generally available for republication under a Creative Commons Attribution-NonCommercial 4.0 International license. Images usually are published under a different license, so we advise you to use alternatives or contact us regarding permission. Here are our full terms for republication. You must credit the author, link to the original story, and name GIJN as the first publisher. For any queries or to send us a courtesy republication note, write to hello@gijn.org.

পরবর্তী

পদ্ধতি

পূর্ব এশিয়াতে যৌন নিপীড়নের ভিডিওর অনলাইন বাণিজ্য নিয়ে অনুসন্ধান

পূর্ব এশিয়ায় কীভাবে যৌন হয়রানির ভিডিও কেনাবেচা হয়— তা নিয়ে বছরব্যাপী অনুসন্ধান চালিয়ে ২০২৩ সালের জুনে একটি তথ্যচিত্র প্রকাশ করেছিল বিবিসি আই। এখানে পড়ুন, কাজটির নেপথ্যের গল্পগুলো।

Firefighters trying to contain a wildfire in Riverside Country in southern California, July 2023. Image: Shutterstock

কেস স্টাডি জলবায়ু

যৌথ অনুসন্ধানে যেভাবে উন্মোচিত হলো দাবানল দূষণ নথিবদ্ধকরণে দুর্বলতার বিরূপ প্রভাব

দাবানল বা আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাত থেকে সৃষ্ট বায়ুদূষণের ঘটনাগুলো যেন যুক্তরাষ্ট্রের এনভায়রনমেন্টাল প্রোটেকশন এজেন্সির (ইপিএ) সরকারী রেকর্ড অন্তর্ভূক্ত না হয়—সেজন্য একটি আইনি ফাঁক রেখে দেওয়া হয়েছে। পড়ুন, কীভাবে এ নিয়ে পরিচালিত হয়েছে একটি যৌথ অনুসন্ধান।

এক অপ্রত্যাশিত যাত্রা: টিভির ক্রীড়া উপস্থাপক থেকে অনুসন্ধানী সাংবাদিক ও আফ্রিকার তারকা সংবাদদাতা

টেলিভিশনের ক্রীড়া উপস্থাপক হিসেবে কাজ শুরুর পর, আন্তর্জাতিক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় ওবাজির আসাটা ছিল অনেকটাই অপ্রত্যাশিত। কিন্তু শেষপর্যন্ত তেমনটি ঘটার পর তিনি আফ্রিকায় অনেক ঝুঁকির মুখে বোকো হারাম, মানবপাচার, রাশিয়ার কর্মকাণ্ড নিয়ে রিপোর্টিং করেছেন। এই সাক্ষাৎকারে পড়ুন, তাঁর এসব কাজের অভিজ্ঞতা এবং সেখান থেকে তিনি যা শিখেছেন।

Studio, headphones, microphone, podcast

সংবাদ ও বিশ্লেষণ

ঘুরে আসুন ২০২৩ সালের বাছাই করা অনুসন্ধানী পডকাস্টের জগত থেকে

নানাবিধ সীমাবদ্ধতা ও প্রতিকূলতার মধ্যেও ২০২৩ সালে বিশ্বজুড়ে প্রকাশিত হয়েছে সাড়া জাগানো কিছু অনুসন্ধানী পডকাস্ট। এখানে তেমনই কিছু বাছাই করা পডকাস্ট তুলে এনেছে জিআইজেএনের বৈশ্বিক দল।